মাকে নিয়ে ইসলামিক উক্তি

মাকে নিয়ে ইসলামিক উক্তি

কুরআনের-বানী-মা-বাবা আর আমি বনি ইসরাইল থেকে এই অঙ্গীকার নিয়েছি যে তোমরা আল্লাহ ছাড়া কারও ইবাদত করবে না,পিতা-মাতার সঙ্গে কারও সদ্ব্যবহার করবে ।-সুরা বাকারা,আয়াত-৮০
মাতা-পিতা-কুরআনের-আয়াত আর তোমরা আল্লাহর ইবাদত করো,তাঁর সঙ্গে কাউকে শরিক কোরো না এবং পিতা-মাতার সঙ্গে সুন্দর আচরণ করো।- সুরা-নিসা,আয়াত:৩৬
মাতা-পিতা-বুখারী-মুসলীম   নবীজী স. বলেছেন,সর্বেত্তম কাজ হলো,পিতার ‍সৃহ্নদয়ের (বন্ধু-বান্ধব,আত্নীয়স্বজন)সাথে সম্পর্ক রাখা।-বুখারী,মুসলিম।

মাতা-পিতা-কুরআন
আর আমি ( আল্লাহ) মানবজাতিকে নির্দেশ দিয়েছি তারা যেন তাদের পিতা- মাতার সঙ্গে সুন্দর আচরণ করে; তার মা তাকে অতিকষ্টে গর্ভে ধারণ করেছেন ও অতিকষ্টে প্রসব করেছেন এবং লালন পালন করেছেন। সুরা আহকাফ,আয়াত ১৫।

মাতা-পিতা-সুরা-লোকমান আমি তো মানুষকে তার পিতা-মাতার প্রতি সদাচরণের নির্দেশ দিয়েছি।জননী সন্তান কে কষ্ঠের পর কষ্ঠ করে গর্ভে ধারণ করেন এবং তার দুধ ছড়ানো হয় দুই বছরে;সুতরাং আমার (আল্লাহর) প্রতি এবংতোমার পিতা-মাতার প্রতি কৃতজ্ঞ হও।প্রত্যাবর্তন তো আমারই কাছে।-সুরা লোকমান,আয়াত-১৪
মা-বাবা-তিরমিজী   রাসূলুল্লাহ(স.) বলেন,তিন রকম দোয়া নি:সন্দেহে আল্লাহর নিকট কবুল হয়।মজলুমের দোয়া,মুসাফিরের দোয়া আর সন্তানের জন্য পিতা-মাতার দোয়।-তিরমিযী
মা-আমার-মা “তোমার রব ফায়সালা করে দিয়েছেনঃ তোমরা তাঁর ইবাদাত ছাড়া অন্য কারোর ইবাদাত কর না, পিতামাতার সাথে ভালো ব্যবহার কর৷ যদি তোমাদের কাছে তাদের কোনো একজন বা উভয় বৃদ্ধ অবস্থায় থাকে, তাহলে তাদেরকে “উহ্‌” পর্যন্তও বল না এবং তাদেরকে ধমকের সুরে জবাব দিও না বরং তাদের সাথে সম্মান ও মর্যাদার সাথে কথা বল।”সূরা বনী ইসরাইল আয়াত-২৩

মা-আমার-মা আর দয়া ও কোমলতা সহকারে তাদের সামনে বিনম্র থাক এবং দোয়া করতে থাকো এই বলেঃ হে আমার প্রতিপালক! আমার পিতা-মাতার প্রতি দয়া কর, যেমন তারা দয়া, মায়া, মমতা সহকারে শৈশবে আমাকে প্রতিপালন করেছিলেন ৷ সূরা বনী ইসরাইল আয়াত-২৪