“পদচিহ্ন” - ফেলে আসা স্মৃতি নিয়ে কবিতা

“পদচিহ্ন” – ফেলে আসা স্মৃতি নিয়ে কবিতা

কল্পনাতে ছোট্ট হয়ে মায়ের কাছে ঘুরি,

রূপকথার ওই তেপান্তরে আজও ছুটে মরি।

কল্পনাতে খুঁজে বেড়াই অতীতের পাঠশালা।

বুড়ো হয়ে বেঁচে থাকার আছে বড় ঠেলা।

 

মা-কাকিমায়ের আদর খেয়ে সোনার ছোট বেলা,

কভু ফিরে আসবে নাক যতই মনে জ্বালা।

সাদা কালো টিভির ছবি ঘোড়াই যে এন্টেনা,

ভালো ছবি পেতে গিয়ে কতই তানা বানা।

 

রেডিওতে কমেন্ট্রিতে কল্পনা জাল বুনে,

খেলা গুলো দেখতে পেতাম কেবল কানে শুনে।

দিদির সাথে খেলতে যেতাম সময় বিকাল হলে,

ডাংগুলি আর খোখো খেলায় মন যে যেত ভুলে।

 

এখনো আছে পাঠশালাটা পাকা ঘরের বেড়া,

টাই লাগানো টিচার আছে নাইকো ধুতি পড়া।

মা কাকিমা চলে গেছে অনেক দূরের পথে,

এখন কেবল কল্পনাটা আছে আমার সাথে।

 

রেডিও টাও আছে বটে কেবল ধুলোয় ভরা,

বাজে কিনা জানি নাকো ঘর জঞ্জাল করা।

সাদা কালো টিভির বালাই আছে রঙিন টিভি,

মনটাতো আর রঙিন যে নেই দম ঘুটোনো সবই।

 

খেলার মাঠটা ফাঁকা থাকে কেউ খেলে না আর,

সবাই নাকি মোবাইলেতে পেয়েছে সংসার।

আমরা ছিলাম সেই দলেতে ভাবুক রামাবলী,

ছড়িয়ে নিয়ে গায়ের ওপর নতুন হয়ে চলি।

 

চোলবেনাকো আবেগ নিয়ে শুধুই বেঁচে থাকা,

কল্পনাটা পরে আছে কেবল কাদা মাখা।

বাস্তবের এই কঠিন পথে ঠোকর খেয়ে চলা,

কল্পজালের ভরা ঘরে তাই মারছি তালা।

Bangla Quote